মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৩rd ডিসেম্বর ২০১৮

প্রেক্ষাপট

সাম্প্রতিক ইতিহাসে দেখা যায় যে, মিয়ানমারে রাজনৈতিক, সামাজিক এবং অর্থনৈতিক শোষণ ও তীব্র বৈষম্যের কারণে বেশ কয়েকবার রোহিঙ্গারা বিতাড়িত হয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করে। ১৯৪২ সাল থেকে এ পর্যন্ত এরকম চারটি বড় আকারের অনুপ্রবেশ সংঘটিত হয়েছে। ১৯৭৮ সালে প্রায় ২,০০,০০০, ১৯৯১-৯২ সালে ২,৫০,০০০, ২০১৬ সালে প্রায় ৮৭,০০০ এবং অতিসম্প্রতি আগষ্ট, ২০১৭ থেকে জানুয়ারী, ২০১৮ এর মধ্যে প্রায় ৭,০০,০০০ রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী বলপূর্বক বাস্তুচ্যুত হয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করে।

বাংলাদেশে আসা রোহিঙ্গাদের সংখ্যা ইতিপূর্বে প্রত্যাবাসনের কারণে হ্রাস পেলেও সাম্প্রতিক সময়ে ২০১৭ সাল থেকে আসা রোহিঙ্গাদের মিয়ানমার এখনো ফিরিয়ে না নেয়ায় এই সংখ্যা কমেনি। বর্তমানে প্রায় ৮,৭০,০০০ বলপূর্বক বাস্তুচ্যুত মিয়ানমারের নাগরিক রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী কক্সবাজার জেলার টেকনাফ ও উখিয়া উপজেলায় অবস্থান করছে। বাংলাদেশ সরকার আরআরআরসি অফিসের মাধ্যমে এই জনগোষ্ঠীকে মৌলিক সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে।


Share with :

Facebook Facebook